1. admin@hrmbangladesh.com : hrmsonia :
HRM Bangladesh। Best HR Professional Service in Bangladesh
বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০৯:৪০ অপরাহ্ন

HR Metrics (এইচ আর ম্যাট্রিক্স) কি? কিভাবে করবেন? কেন করবেন?

Reporter
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫৮৫ Time View
What is HR Matrics
What is HR MatricsWhat is HR Matrics

Hr metrics হল একটা  miserable value । এর দ্বারা Hr এর ভিবিন্ন function  এবং sub function  গুলোকে  measurement করে একটা value বের করা হয় যেটা ভবিস্যতের সিদ্ধান্ত গ্রহনে সহায়তা করে এবং নতুন পরিকল্পনা তৈরীতে সহায়তা করে। প্রতিষ্ঠানের স্বার্থ কোন পরিকল্পনাকে বাস্তবায়ন করতে কোন কোন function বাড়াতে হয় আবার কোন কোন function সংকুচিত  করতে হয়।আবার কোন কোন function control করতে হয়।   planning organizing, directing এ বিষয় গুরো একজন  manager  জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ন। এই  manager যে কোন department  এর হতে পারে যেমন HR manager, SALES MANAGER, MARKETING MANAGER  ইত্যাদি ।

Function: Recruitment, Performance appraisal, Training, Operation, Objective

Sub Function : Appraisal,  Training, Operation, Objective control

Revenue per employee= Total revenue/ Total Number of Employee (Total Manpower Strength)  enlisted full time employee  and  pay roll employee. Include full time employee or part time employee, pay roll employee or off role employee.

Total revenue:  Time firms of month / Total Number of Employee.

HR metrics  দ্বারা  turnover ,  নিয়োগের খরচ নির্নয়, ভিবিন্ন ধরনের   training এর সুবিধা অসুবিধা এ বিষয় গুলোকে পরিমাপ করা হয়্ ।

HR metrics  করার কতগুলো লক্ষনীয় বিষয়।

১. বিষয়ের উপর ভিত্তি করে করে সঠিক তথ্য সংগ্রহ করে: HR metrics এমন একটি একটি কার্যকরী ব্যবস্থা, যা একটি org HR Practice কতটা দক্ষ, এবং কার্যকর তা নির্নয় করে। সঠিত তথ্য সংগ্রহ করে সেগুলো সঠিক ভাবে বিশ্লেষণ করে ভবিস্যতের সিদ্ধন্ত গ্রহনের সহায়তা করে। একটি সঠিক সিদ্ধন্ত এবং সঠিক পরিকল্পনা কর্মী এবং প্রতিষ্ঠানকে  প্রভাবিত করে।

২) বিষয় বুঝে metrics করতে হয়: :

যদিও কর্মক্ষমতা নিরীক্ষণের জন্য মেট্রিক্স ব্যবহার করা হয়। এক্ষেত্রে  অধিকাংশ তথ্য গানিতিক বা পরিসংখ্যনের উপর নির্ভর করে যেটা অনেক সময় সিদ্ধান্ত গ্রহনে সমস্যা তৈরী করে তাই সমাধানের জন্য নতুন কৌশল ও বুদ্ধিমত্তা করতে হবে।

৩) সবসময় একটি Business Case তৈরী করতে হবে: একটি সুনির্দিস্ট লক্ষ্য নির্ধারন করে তারপর metrics করতে হবে। এ কথা সত্য য়ে HR সবসময়  প্রতিষ্ঠানের স্বার্থে কাজ করে তবে এমন কোন কাজ করা উচিত হবেনা যাতে প্রতিস্ঠানের ব্যায় সাপেক্ষ হয় অথবা কর্মীদের কাজে ব্যাঘাত ঘটে।

তাই কোন metrics করার পূর্বে Case Study করতে হবে। কি করতে চাচ্ছেন, কি ধরনের প্রক্রিয়া ব্যবহার করবেন, কি ধরনের রেজাল্ট আশা করছেন , আপনার  লক্ষ্য কি, এতে প্রতিষ্ঠানের কি সাফল্য আসতে পারে এবং সর্বপরি প্রতিষ্ঠানের কি ধরনের খরচ হবে এবং কতহটুক সময় লাগবে।

৪) Metrics এর উপর নির্ভর না হওয়া: Metrics করলেই যে প্রতিষ্ঠানের বা কর্মীদের ভাল হবে তা কিন্তু নয়। অনেক সময়  দেখা যায় Metrics করেও ভাল কোন রেজাল্ট পাওয়া যাচ্ছে না। তাই নিজেস্ব বুদ্ধিমত্তা প্রয়োগ করে ও অনেক ভাল সমাধান পাওয়া যায়।

৫) উপযুক্ত প্রজেক্টে HR Metrics   করতে হবে: প্রতিষ্ঠানের যে সকল প্রজেক্টে HR Metrics করতে হবে সে গুলো আগে নির্ধারন করতে হবে। প্রজেক্টের সমস্যা  গুলোও নির্ধারন করতে হবে। এরপর Metrics করতে হবে। 

যেমন যদি দেখেন অনেক কর্মী কাজে উদাসীন তাহলে ছাটাইয়ের চিন্তা করা যেতে পারে । এক্ষেত্রে অনেকেরই performance data collect করতে হতে পারে। আপনি সমস্যাটি বের করার জন্য data collect করে   সমস্যাটি খুঁজে বের করুন।  তারপরে তার সমাধান তৈরীতে  কোন metrics  ব্যবহার করবেন তা নির্ধারন করূন। এক্ষেত্রে  কর্মীর উদাসীনতায়  প্রতিষ্ঠানের কিরুপ আয় কমেছে তার  জন্য  turnover অত্যন্ত জরুরি কিনা এবং এভাবে  organization productive উপর কি প্রভাব ফেলছে সেগুলো বে করতে হবে।  কর্মক্ষমতা এবং উত্পাদনশীলতা যে  হ্রাস পেয়েছে তার কারণ কি হতে পারে শ্রমিকদের খুব কম সময়ে খুব বেশি কাজ করতে হয়?

৬) প্রশ্ন করতে হবে: যখন কেন প্রজেক্টের উপর Metrics করতে চান সেগুলো নিয়ে বেশ কিছু Question mark তৈরী করুন। যত বেশি   Question Mark তৈরী করবেন ততই ক্লিয়ার হবেন। ধরুন কোন প্রজেক্টের জন্য বিদেশ থেকে দুইজন কর্মী নিয়োগ দিবেন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।  সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যবসায়িক কারণগুলি সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করুন এবং তারা নতুন একটা পরিবেশে এই ধরনের দূরবর্তী স্থানে সফল হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত দক্ষতা তাদের আছে কিনা বিবেচনা করুন।

বিভিন্ন ধরনের প্রশ্ন করা হলে আপনি নানান ধরনের চ্যালেঞ্জের মুখামুখী হবেন তখন চাইলে আপনি

Agarwal এর HR metrics  ব্যবহার করতে পারেন:

  • Tie the business strategy to the HR strategy.
  • Ask the critical human capital questions.
  • Determine the measurements that will help you address the issues at hand.

৭) প্রতিষ্ঠান জুড়ে কাজ করতে হবে: Metrics এর খুব ভাল Output পেতে হলে প্রতিষ্ঠানের সকল কে নিয়ে কাজ করতে হবে। সকল Department এর কাজ থেকে তথ্য সংগ্রহ করতে হবে। কৌশলগত ভাবে এবং দক্ষতার সাথে  তথ্য  সংগ্রহ করতে হবে।  Human Resource Department এমন একটি Department যেখানে চাইলেই সকল বিষয় সবার সাথে আলোচনা করা যায় না। তাই দক্ষতার সাথে সবার সথে মিশে কাজ করতে হবে। কারন প্রতিষ্ঠানের সকল Department ভাবে   Human Resource Department সবচেয়ে দক্ষ এবং কার্যকারী একটি  Department । যেমন ধরুন Metrics এর কারনে কর্মীদের  Turnover না করে তাদের Traning দিয়ে   Skill Development করা যেতে পারে।

৮ )পুরোনো Metrics এর সহায়তা: যারা HR professionals থাকেন তাদের বেশির ভাগ কাজই দৃশ্যমন হয় না । তবে দক্ষতার ভিত্তিতে তাদের কাজের প্রমান মেলে। কোন প্রজেক্টের Metrics করতে হলে অবশ্যই সেখানে কিছু সময় ও অর্থের ব্যায় হয়। তাই কোন কোন প্রজেক্টে Metrics করার সময় পূর্বের করা কোন Metrics বা সিদ্ধান্ত থেকে সহায়তা নেওয়া যেতে পারে। যেমন: ধরুন আপনি কোন প্রজেক্টের জন্য কর্মীদের Trining এর ব্যবস্থা করতে চান তাই এখন এটার উপর কোন একটা Metrics করবেন সে ক্ষেত্রে পূবে করা কোন  Trining এর জন্য করা Metrics এর ফলাফল দেখে নতুন Metrics করার জন্য সহায়তা নিতে পারেন।

৯) No Compromise on Data Quality: প্রতিষ্ঠানের উন্নতি সাধনের জন্যই Metrics করা হয়।  আর  Proper Metrics করার জন্য Proper  Data Collect করতে হয়। অহেতুক, অসামসাঞ্জপূর্ন এবং অযুক্তিক  Data Collect করে একটা ভুল Metrics তৈরী করা ঠিক না। ভুল Metrics  তৈরী করে এবং ভুল ফলাফল তৈরী করলে প্রতিষ্ঠান কে অনেক বড় খেসারত দিতে হয়।  Proper  Data Collect করার জন্য কিছু বিষয় খেয়াল রাখতে পারেন। যেমন:

  • Metrics জন্য  Collect Data গুলো অবশ্যই সময়ের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হতে হবে। অথ্যাৎ ৫ বছর আগে নিয়োগের  Metrics করার জন্য যে Data Collect করেছিলেন ৫ বছর পরে ওই একই Data উপর ভিত্তি করে  Metrics করবেন না।
  • তথ্য নির্ভুল (Accurate) হতে হবে। যে তথ্যটি সংগ্রহ করবেন তা  সুনির্দিষ্ট, যোক্তিক, গুরুত্বপূর্ন হতে হবে। যাতে এটি রেকর্ড করার ক্ষেত্রে কোন ত্রুটি না থাকে।
  • নির্ভরযোগ্য (Reliable) তথ্য হতে হবে। তথ্যের উপর ভিত্তি করেই যেহেতু Metrics করা হয় তাই অবশ্যই তথ্যগুলো নির্ভরযোগ্য হতে হবে।
  • দক্ষতা Metrics করার সময় এবং খরচ উভই হ্রাস করে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved And Copyright Protected © 2022 HRM Bangladesh
Developed By HRM Bangladesh
error: Do Not Try To Copy. All Content is Protected by Law. Its a Punishable Offence !!